মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

বানী

কিছু কথা

জেলা পরিষদ বাংলাদেশের একটি প্রাচীনতম স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান। বহুকাল পূর্ব থেকে মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদ স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে উন্নয়ন ও সেবামূলক কাজ করে আসছে। এ জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের রাসত্মা-ঘাট নির্মাণ/সংস্কার, সেতু-কালভার্ট নির্মাণ, ফেরীঘাট/খেয়াঘাট রক্ষনাবেক্ষন, অডিটরিয়াম-কাম-কমিউনিটি সেন্টার, ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্রেক্স ভবন, ডাকবাংলো নির্মাণ ও ব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো নির্মাণ ইত্যাদি নানাবিধ কর্মকান্ডের সাথে মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদ জড়িত। তা ছাড়া মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদের উদ্যোগে দারিদ্র নিরসন, নারী উন্নয়ন, আত্মকর্মসংস্থান, জীবনমান উন্নয়ন ও সচেতনতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বেকার যুবক/যুব মহিলাদের জন্য ড্রাইভিং প্রশিক্ষন, বৈদ্যুতিক ট্রেড কোর্স ইত্যাদি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

 

উন্নয়ন কর্মকান্ডের তথ্য ও ছবি সম্বলিত এ পুস্তিকার মাধ্যমে একদিকে জেলা পরিষদের কর্মকান্ড সম্পর্কে এলাকার জনসাধারণ ধারণা লাভ করবে, অপরদিকে সেবার মান উন্নয়ন ও দক্ষতার সাথে জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌছে দিতে জেলা পরিষদের কর্মকর্তা/কর্মচারীগণ আরও সজাগ ও সচেষ্ট হবেন।

 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে আমাদের দেশের বিপুলসংখ্যক জনগোষ্ঠীকে জনসম্পদে রূপান্তরিত করতে, বাংলাদেশকে এশিয়ার মধ্যে উদীয়মান অর্থনৈতিক শক্তিশালী দেশ হিসেবে আবির্ভূত করতে এবং একটি মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত করতে, জেলা পরিষদের অধীনে পরিচালিত উন্নয়ন কর্মকান্ডসমূহের সুশৃংখল তথ্যচিত্র সমৃদ্ধ এরূপ একটি প্রকাশনা গুরম্নত্বপূর্ণ ও সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আমি মনে করি।

 

মুন্সীগঞ্জজেলা পরিষদের উদ্যোগে যে সকল উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করা হয়েছে তার উল্লেখযোগ্য কিছু অংশ এ উন্নয়ন পরিক্রমায় স্থান পেয়েছে।  এ সকল উন্নয়ন কর্মকান্ড সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে বাস্তবায়নে সহযোগিতা প্রদানের জন্য জেলা পরিষদের সকল কর্মকর্তা/কর্মচারী, ঠিকাদার, শুভাকাঙ্খী ও এলাকাবাসীকে জানাই আন্তরিক শুভকামনা ও কৃতজ্ঞতা।

 

ইতিপূর্বে এ ধরণের প্রকাশনা না থাকায় জেলা পরিষদের কর্মকান্ড সম্পর্কে স্থানীয় জনসাধারণের সুষ্পষ্ট  ধারণা ছিল না। এ পুস্তিকাটি প্রকাশের ফলে জেলাবাসী জেলা পরিষদের কর্মকান্ড সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা লাভ করবে এবং জেলা পরিষদের কর্মকান্ডের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে। অত্র জেলা পরিষদের প্রশাসক মহোদয়ের সুচিন্তত মতামত ও গুরম্নত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনা, জেলা পরিষদের কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দের কঠোর পরিশ্রম ও ঐকামিত্মক সহযোগিতার ফলে ‘‘উন্নয়ন পরিক্রমা’’ নামক এ পুস্তিকাটির প্রকাশনা সম্ভব হয়েছে। আমি সংশিস্নষ্ট সকলকে তাঁদের  সহযোগিতার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।

 

          প্রকাশিত ‘‘উন্নয়ন পরিক্রমা’’ সদাশয় সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়নের গতি ত্বরান্বিত করতে সাহায্য করবে এবং জেলার অন্যান্য স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অনন্য ভূমিকা পালন করবে বলে আমার প্রত্যাশা।

 

 

 

 

সওদাগর মুস্তাফিজুর রহমান

(যুগ্ম-সচিব)

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা

জেলা পরিষদ, মুন্সীগঞ্জ